1. admin@dailypratidinerbarta.com : admin :
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব পেলেন সুজন দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সি,পি,আর,এস, এর চেয়ারম্যান ও দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকার সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ রাশেদ উদ্দিন আসামের রামকৃষ্ণনগরে ৩ সন্তানকে কুপিয়ে খুন করল পাষন্ড মা পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থা,র উদ্যোগে ৫ শতাধিক দুস্থদের মাঝে ঈদ উপহার নগাঁওয়ে দুর্ঘটনায় নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত প্রকৌশলী নিহত  পবিত্র ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনাব আলহাজ্ব আলী আহম্মদ সাহেব। দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কে এম এস গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা হাবিবুল্লাহ কাঁচপুরী ইফতার ও বাজার পরিদর্শন জেলা পুলিশ: নওগাঁ হানা গ্রুপের চেয়ারম্যান এর মাহে রমজানের ঈদ-উল ফিতরের শুভেচ্ছা বার্তা মুন্সীগঞ্জে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

২১ শে ফেব্রুয়ারি,মহান মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথা।

  • আপডেট সময় : সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ৫৭ বার পঠিত

রাজু আহমেদ, স্টাফ রিপোর্টার

২১শে ফেব্রুয়ারি,১৯৫২ সাল। প্রত্যেক দিনের মত সকালটা শুরু হলেও দিনটি ছিল বাংলার ইতিহাসে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। ভাষা নিয়ে পশ্চিম পাকিস্তানের করা সকল অত্যাচার, নিপীড়ন এর বিরুদ্ধে জেগে ওঠা আমাদের সূর্যসন্তানেরা ১৪৪ ধারা জারি থাকা সত্বেও রাজপথে আন্দোলন করার সিদ্ধান্ত নেন। “রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই” স্লোগানে মুখরিত হয় রাজপথ। মিছিলে হামলা চালায় পুলিশ; লাঠিচার্জ ও গুলিবর্ষণ শুরু হয়। সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার সহ আরো ভাষা শহিদদের রক্তে রঞ্জিত হয় রাজপথ। তাদের ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত হয় আমাদের মাতৃভাষা, প্রাণের ভাষা “বাংলা”; যুক্ত হয় রাষ্ট্রভাষা হিসেবে সংবিধানে। এই ভাষা আন্দোলনই পরবর্তী সকল আন্দোলনে আমাদের অনুপ্রেরণা যোগায়। আমাদের ভাষা শহিদদের আত্মত্যাগকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য ৫ই আগষ্ট, ২০১০ সালে জাতিসংঘ কর্তৃক গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিবছর একুশে ফেব্রুয়ারিকে বিশ্বব্যাপী ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়। “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস”এর সূচনা হয়েছিল আমাদের বাংলা ভাষাকে কেন্দ্র করে। প্রতি বছর এই দিনটি আমাদের মনে করিয়ে দেয় মাতৃভাষার গুরুত্ব ও মর্যাদার কথা। প্রত্যেকটা মানুষ যেনো তার মায়ের ভাষায় কথা বলতে পারে এটাই নিশ্চিত করার মূলমন্ত্র নিয়ে প্রতি বছর পালিত হয় এই দিবসটি।

তাইতো প্রতি বছরই মনে পরে যায়,শহীদ আলতাফ মাহমুদের সুরে অমর একুশের গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি!!’ ।

যে মহান শহীদদের রক্তের বিনিময়ে আমরা এই বাংলা ভাষা পেয়েছি, মাতৃভাষায় কথা বলতে পারছি, তাদের কে যানায় বিনম্র শ্রদ্ধা। শহীদ দিবস অমর হউক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক প্রতিদিনের বার্তা ©
Theme Customized By Shakil IT Park