1. admin@dailypratidinerbarta.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৮:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

স্বামী, শাশুড়িকে খুন! দেহ টুকরো করে ফ্রিজে রাখলেন আসামের গৃহবধূ

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ৭০ বার পঠিত

সুজন চক্রবর্তী,আসাম ( ভারত) প্রতিনিধিঃ-

ভারতের আসামরাজ‍্যে একটি লোমহর্ষক খুনের ঘটনা প্রকাশ‍্যে এল। স্বামী এবং শাশুড়িকে খুনের পর তাঁদের দেহ টুকরো করে ফ্রিজে রেখেছিলেন। এ অভিযোগে গ্রেফতার করা হল আসামরাজ‍্যের এক গৃহবধূকে। স্বামী এবং শাশুড়ির টুকরো দেহাংশ পরে মেঘালয়ের জঙ্গলে ফেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। রবিবার যা উদ্ধার করেছে পুলিশ। গুয়াহাটিতে এই হত‍্যাকান্ডের কথা সোমবার জানিয়েছে পুলিশ। ধৃত মহিলার নাম বন্দনা কলিতা। তাঁর সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছে ধনজিৎ ডেকা নামে এক যুবককে। তদন্তকারীদের দাবি, ধনজিতের সঙ্গে বন্দনার বিবাহবহাভূর্ত সম্পর্ক ছিল। সেই কারণেই খুন কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। খুনে জড়িত থাকার অভিযোগে অরুপ দাস নামে বন্দনার এক বন্ধুকে ও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গুয়াহাটির পুলিশ কমিশনার দিগন্ত বরা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, অমরেন্দ্র দে এবং তাঁর মা শংকরী দে কে গত ৭ মাস আগে খুন করা হয়েছিল। খুনের পর তাঁদের দেহ টুকরো করে পলিথিনে ভরে প্রথমে ফ্রিজে রেখেছিলেন বন্দনা। তারপর সেই দেহাংশগুলি লোপাটের জন‍্য মেঘালয়ের জঙ্গলে ফেলে দেন তিনি। প্রাথমিক তদন্তে এমনটাই মনে করছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে প্রকাশ, খুনের পর স্বামী এবং শাশুড়ির নামে নিজেই নুনমাটি থানায় নিখোঁজ ডায়েরি দায়ের করেছিলেন বন্দনা। কিন্তু সেই তদন্তে কিছুই পাওয়া যায়নি। এরপর অমরেন্দ্রের তুতো ভাই আরও একটি নিখোঁজ ডায়েরি দায়ের করেন। তার ভিত্তিতে পুণরায় এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়। গত ১৭ ই ফেব্রুয়ারি বন্দনাকে আটক করে পুলিশ। রবিবার তল্লাশি চালিয়ে দেহের কিছু টুকরো উদ্ধার করেছে পুলিশ। এরপরই বন্দনা এবং ওই ২ যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। অমরেন্দ্র এবং তাঁর মায়ের বাকি দেহাংশগুলি উদ্ধার করতে তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক প্রতিদিনের বার্তা ©
Theme Customized By Shakil IT Park