1. admin@dailypratidinerbarta.com : admin :
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০১:৩৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আজ দৈনিক প্রতিদিনের বার্তার প্রকাশক ও সম্পাদক মোঃ ফিরোজ শাঁইয়ের শুভজন্মদিন নিপুণ কে, কি এবং কি করেন, তা তার নিজেরই ভেবে দেখা উচিৎ- ডিপজল মুন্সীগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী মিরাপাড়া নির্মিত হচ্ছে মসজিদ ও কমপ্লেক্স এর নতুন চিত্র। তুষারধারায় চেয়ারম্যান সেন্টুর নির্দেশে প্যানেল চেয়ারম্যান অনামিকা আরসিসি রাস্তার কাজের শুভ উদ্বোধন করলেন  কয়রায় অসংক্রামক রোগের প্রতিকার ও প্রতিরোধ বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন নাইকো দুর্নীতি মামলা খালেদার জিয়ার বিরুদ্ধে সাবেক বাপেক্স এমডির সাক্ষ্য মাতুয়াইল শিশু মাতৃ স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যু জাতীয় আইটি প্রতিযোগিতায় অটিজম বিভাগে প্রথম স্হান অর্জন করেছেন,কয়রার রায়াত মুন্সীগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা কমিটি সভায় কিশোর গ্যাং মাদক নিয়ন্ত্রণে কঠোর ভূমিকা। ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশ কর্তৃক মাদক সহ আটক -৭

নারায়ণগঞ্জে আশংকাজনক হারে বাড়ছে ডায়েরিয়া রোগীর সংখ্যা, হিমসিম খাচ্ছে চিকিৎসক ও নার্স

  • আপডেট সময় : রবিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১১১ বার পঠিত

আরিফ মিয়া :স্টাফ রিপোর্টারঃ-

গ্রীষ্মের তাপদাহে আর তীব্র গরমের কারণে নারায়ণগঞ্জে ডায়রিয়ায় আক্রান্তের রোগীর সংখ্যা আশংকাজনক হারে বাড়ছে। প্রতিদিন জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে শতাধিক রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আর তাদের মধ্যে শিশুদের সংখ্যাই বেশি। এ পরিস্থিতিতে অতিরিক্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম চাপের মুখে পড়েছেন নার্স ও চিকিৎসকরা। 

নারায়ণগঞ্জ সদরের ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, ডায়রিয়া ওয়ার্ডে গত একসপ্তাহে ধরে একটি বেডও খালি নেই। প্রতিটি বেডেই গুরুতর রোগীদের চিকিৎসা চলছে। তাদের মধ্যে শিশু রোগীর সংখ্যাই বেশি।

প্রচন্ড গরমের কারণে রমজান মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে নারায়ণগঞ্জে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব শুরু হয়। রোগী ভর্তির সংখ্যা প্রতিদিন বাড়তে থাকে। তবে ঈদুল ফিতরের আগের দিন থেকে ডায়রিয়ায় আক্রান্তের হার মারাত্বক আকার ধারণ করে। 
চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত নার্স ও সংশ্লিষ্টরা জানান, এই হাসপাতালে প্রতিদিন গড়ে কমপক্ষে ১২৫ থেকে দেড়শ’ জন রোগী ডায়রিয়ার চিকিৎসা নিচ্ছেন। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রোগীদের ভীড়ে তিল ধারণেরও জায়গা হচ্ছে না। সেখান থেকে চিকিৎসা ও ব্যবস্থাপত্র দিয়ে রোগীদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে। আর, গুরুতর রোগীদের ভর্তি করে পাঠানো হচ্ছে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে। 

চিকিৎসার পর রোগীর অবস্থা ভালো হলে তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয় । তবে পর্যাপ্ত পরিমানে স্যালাইন, ইনজেকশন ও ঔষধ মজুদ থাকলেও মাত্র ১০ বেডের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে এতো রোগীর চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন নার্স ও চিকিৎসকরা। রোগী সামলাতে নার্স ও স্টাফদের এবার ঈদের ছুটিও বাতিল করে তাদের ডিউটি দেয়া হয়েছে বলে জানান দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা ।  

নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. গোলাম মোস্তফা জানান, হঠাৎ করে আবহাওয়ার তারতম্য ও ঈদ উপলক্ষে খাবারের পরিবর্তন হওয়ায় এতো মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তবে সবাই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে যাচ্ছেন। 

তিনি বলেন, এখানে পর্যাপ্ত পরিমান ঔষধ, স্যালাইন ও ইনজেকশন মজুদ আছে। কোন রোগীকে ঢাকায় কলেরা হাসপাতালে পাঠানোর প্রয়োজন পড়েনি। এখানেই যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানান হাসপাতালটির জরুরি বিভাগের এই চিকিৎসক। 

নারায়ণগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ড কতৃপক্ষ জানান, গত ১০ দিনে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত আড়াইহাজারেরও বেশী রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। 

নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুশিউর রহমান বলেন, সকল উপজেলা থেকে সদরের ডায়রিয়ার চাপ একটু বেশি। তবে পর্যাপ্ত পরিমাণে ঔষধ মওজুত রয়েছে। সর্বক্ষনিক ডাক্তাররা রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

দিনে ৭০ থেকে ১০০ জন ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী আসছে। কেউ কেউ একটু সুস্থ হয়ে চলে যাচ্ছে। পরে বাসায় গিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। যাদের অবস্থা গুরুতর তাদের ভর্তি রাখা হচ্ছে। আর যাদের ছেড়ে দেওয়ার মতো তাদের চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক প্রতিদিনের বার্তা ©
Theme Customized By Shakil IT Park