1. admin@dailypratidinerbarta.com : admin :
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব পেলেন সুজন দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সি,পি,আর,এস, এর চেয়ারম্যান ও দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকার সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ রাশেদ উদ্দিন আসামের রামকৃষ্ণনগরে ৩ সন্তানকে কুপিয়ে খুন করল পাষন্ড মা পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থা,র উদ্যোগে ৫ শতাধিক দুস্থদের মাঝে ঈদ উপহার নগাঁওয়ে দুর্ঘটনায় নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত প্রকৌশলী নিহত  পবিত্র ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনাব আলহাজ্ব আলী আহম্মদ সাহেব। দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কে এম এস গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা হাবিবুল্লাহ কাঁচপুরী ইফতার ও বাজার পরিদর্শন জেলা পুলিশ: নওগাঁ হানা গ্রুপের চেয়ারম্যান এর মাহে রমজানের ঈদ-উল ফিতরের শুভেচ্ছা বার্তা মুন্সীগঞ্জে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

লাখাইয়ে অনাবাদি জমিতে সরিষা চাষ

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ১৫৩ বার পঠিত

মাসুক রানা,লাখাই হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ-

হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলায় বিভিন্ন জাতের সরিষা চাষে বড় ধরনের সুফল পাচ্ছেন কৃষক। ভোজ্যতেলের দাম বাড়তি থাকায় সরিষা বীজ বিক্রিতেও ভালো দাম পাচ্ছেন। এতে কৃষকদের মুখে হাসি ফোটেছে।
আগে এই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বোরো আবাদ চলত।কিন্তু বোরো আবাদে সেচের প্রয়োজন থাকায় সবজমিতেই সেই সেচ সুবিধা মিলত না। এতে বিপুল জমি অনাবাদি থাকত। এই প্রথম কৃষি বিভাগের পরামর্শে অনাবাদি সেই জমিতে সরিষা চাষ করেছেন কৃষকরা, এরপরই সুফল পেতে শুরু করেছেন। হাসি ফুটেছে এই কৃষকদের সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার ১নং ইউনিয়নের ধলেশ্বরী নদীর দক্ষিণ দিকে কলকলিয়া নদীর পশ্চিম দিকে জরিপপুর হাওর এলাকাসহ উপজেলার প্রায় সব অঞ্চলে জমিতে এক থেকে দুটি ফসলের বেশি আবাদ হত না। সরকারের কৃষিবান্ধব নানা পদক্ষেপের কারণে বর্তমানে এই উপজেলার জমিতে চাষ হচ্ছে একটি বাড়তি ফসল। হাওরাঞ্চলবেষ্টিত উপজেলায় অনাবাদ পড়ে থাকা জমিগুলোতে আবাদ হচ্ছে সরিষা। অথচ অনেক বছর আগে পানি সংকটসহ নানা কারণে দীর্ঘ সময় পড়ে থাকত এ সব জমি।
উপজেলার লাখাই ইউনিয়নের স্বজনগ্রামে ২শ শতক জমিতে সরিষা আবাদ করেছেন কৃষক আব্দুল নুর ও আশীষ দাশগুপ্ত । তারা বলেন, সেচের কারনে জমি পরিত্যক্ত থাকত। পরে লাখাই কৃষি অফিসের সহযোগিতায় আমরা এই জমিতে সরিষার চাষ করি। এই জমিতে বৃষ্টির কারণে একবার সরষা গোপন করার পর নষ্ট হয়ে গেছে আমারা দ্বিতীয়বার বপন করে প্রায় ১৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। যদি আবহাওয়া অনুকূলে থাকে ভালো ফসল হয় তাহলে ৯০/৯৫ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারব।
সরকারের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী সাময়িক পতিত জমিতে যদি সরিষার আবার করা হয় সেক্ষেত্রে কৃষকরা বড় ধরনের লাভবান হতে পারে। এ প্রেক্ষিতে এবার উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে ৫৭০০ জন কৃষকের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ করেছে কৃষি কার্যালয়। অনেক জায়গায় বাম্পার ফলনও সম্ভাবনা রয়েছে।
লাখাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মাহমুদুল হাসান মিজান বলেন, বাড়তি ফসল হিসেবে সরিষা চাষ করতে আমরা কৃষকদের উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছি। পাশাপাশি বিনা মূল্যে বিভিন্ন জাতের সরিষা বীজ ও সার কৃষকদের মধ্যে আমাদের এম,পি আলহাজ্ব এডভোকেট আবু জাহির বিতরণ করেছেন। এ ছাড়াও আমরা কৃষকদের পরামর্শসহ সব ধরনের সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছি। তিনি আরো বলেন অনাবাদি জমিতে চাষ করার জন্য বিশেষ কোনো অনুদান দেওয়া হয়নি, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে সরিষার বাম্পার ফসলের সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক প্রতিদিনের বার্তা ©
Theme Customized By Shakil IT Park