1. admin@dailypratidinerbarta.com : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৫:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
একে একে বেরিয়ে আসছে এনবিআরের ‘কালো বিড়াল’, কোথায় কী সম্পদ মুন্সীগঞ্জে রাস্তার পাগলকে বদলে দিলেন সেবায় মানবকল্যাণ টিম শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টায় এক যুবক আটক মুন্সীগঞ্জে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী সর্বাত্মক নিরাপত্তা ব্যবস্থা ডিসি মতলব উত্তরে ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে চার পরিবার সমাজচ্যুত মুন্সীগঞ্জে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী আগমনে বিষয়ে যা বললেন এমপি মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় প্রধানমন্ত্রী আগমনে জেলা পুলিশ সুপার ব্রিফিং মতিউরের চার ফ্ল্যাট ও জমি ক্রোকের নির্দেশ কয়রায় যৌতুক নির্যাতনের শিকার হয়ে ঘর ছাড়া মা -মেয়ে বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন হত্যা মামলার অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন ১ আগষ্ট

শিশু হত্যার দায়ে দুজনের মৃত্যুদণ্ড, একজনের যাবজ্জীবন

  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ৭৭ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক:-
বগুড়ার শাজাহানপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে শিশু রোমান হোসেনকে (৫) হত্যার পর মরদেহ গুম করার দায়ে ১২ বছর পর দুইজনের মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক বেগম রুবাইয়া ইয়াছমিন এই রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুইজন হলেন- জেলার শাজাহানপুরের ক্ষুদ্র কুষ্টিয়া গ্রামের আব্দুল খালেক ও চোপি নগর দক্ষিণ পাড়ার আব্দুল মাজেদ। তবে এই দুইজন পলাতক রয়েছেন।

রায়ে ক্ষুদ্র কুষ্টিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাককে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়া হয়েছে। তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের ২৩ আগস্ট শাজাহানপুরের চোপি নগর এলাকার মাহবুর রহমানের ছেলে রোমানকে হত্যার পর মরদেহ গুম করে আসামিরা। পরে ওই বছরের ২৮ আগস্ট একই এলাকার খলিল নামে একজনের বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে রোমানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জহুরুল ইসলাম বলেন, রোমান হোসেনের দাদার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আসামি খালেক ও মাজেদের সঙ্গে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল। এছাড়া নিহতের পরিবারের সঙ্গে তাদের জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিল। এসবের প্রতিশোধ নিতে আব্দুল খালেক ও আব্দুল মাজেদ শিশু রোমানকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। তারা আব্দুর রাজ্জাকের মাধ্যমে রোমানকে চকলেটের লোভ দিয়ে নিয়ে আসেন। এ কাজের জন্য আব্দুর রাজ্জাককে ৮ হাজার টাকা দেন খালেক ও মাজেদ।

পরে খালেক ও মাজেদ মিলে রোমানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। এ সময় ওই শিশুর মরদেহ এলাকার এক প্রতিবেশীর বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভেতর গুম করে রাখেন। রোমান নিখোঁজের পর খালেকের আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনা স্বীকার করেন। এ সময় তিনি মাজেদ ও রাজ্জাকের সম্পৃক্ততার কথা জানান। পরে তাদের দেওয়া তথ্য মতে রোমানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আইনজীবী জহুরুল ইসলাম জানান, আসামিরা হত্যার দায় স্বীকার করে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দি দিয়েছেন। আজ সোমবার বিচারক বেগম রুবাইয়া ইয়াছমিন শিশু রোমান হত্যা মামলায় আসামি আব্দুল খালেক ও আব্দুল মাজেদকে মৃত্যুদণ্ড দেন। আর আব্দুর রাজ্জাককে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক প্রতিদিনের বার্তা ©
Theme Customized By Shakil IT Park