1. admin@dailypratidinerbarta.com : admin :
শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
একে একে বেরিয়ে আসছে এনবিআরের ‘কালো বিড়াল’, কোথায় কী সম্পদ মুন্সীগঞ্জে রাস্তার পাগলকে বদলে দিলেন সেবায় মানবকল্যাণ টিম শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টায় এক যুবক আটক মুন্সীগঞ্জে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী সর্বাত্মক নিরাপত্তা ব্যবস্থা ডিসি মতলব উত্তরে ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে চার পরিবার সমাজচ্যুত মুন্সীগঞ্জে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী আগমনে বিষয়ে যা বললেন এমপি মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় প্রধানমন্ত্রী আগমনে জেলা পুলিশ সুপার ব্রিফিং মতিউরের চার ফ্ল্যাট ও জমি ক্রোকের নির্দেশ কয়রায় যৌতুক নির্যাতনের শিকার হয়ে ঘর ছাড়া মা -মেয়ে বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন হত্যা মামলার অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন ১ আগষ্ট

‘ডিভোর্সটা হয়েই গেল’, কী বার্তা দিলেন নচিকেতা

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২৩
  • ৮২ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্ক :–
‘ডিভোর্সটা হয়েই গেল’ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সংগীতশিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তীর এমন ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বহুদিন ধরে জল্পনা-কল্পনা চলছিল। অবশেষে সত্য সামনে এলো। নচিকেতার নতুন গান হ্যাপি ডিভোর্স গান মুক্তি পেয়েছে। নচিকেতার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব থেকে এই গান মুক্তি পেয়েছে।

আগেই নচিকেতা ঘোষণা করেছিলেন শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) এই গান মুক্তি পেতে চলেছে। সে অনুযায়ী আজ নচিকেতার হ্যাপি ডিভোর্স গান মুক্তি পেল। আগুনপাখির প্রযোজনায় এই গানের কথা, সুর থেকে অ্যালবামের ভিডিও পরিকল্পনা, পরিচালনা, সবই নচিকেতার।

গান মুক্তির আগে যে পোস্টারটি দেওয়া হয়েছিল তাতে একটি কাপের ছবি দেওয়া হয়। আর সেই কাপের উপর লেখা, ‘দ্য বেস্ট হাসব্যান্ড’, অর্থাৎ ‘সেরা স্বামী’। কিন্তু ‘হাসব্যান্ড’ শব্দটি কেটে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ স্বামী-স্ত্রীর দ্বন্দ্ব-বিবাদ নিয়েই নচিকেতার এই গান।

কিছুদিন আগেই ফেসবুকে নচিকেতার রহস্যজনক পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন তুলেছিল। পোস্টারে লেখা ডিভোর্স আর সেটা আড়াআড়িভাবে কাটা। সঙ্গে লেখা, ‘যাঃ অবশেষে ডিভোর্সটা হয়েই গেল’। এই পোস্ট দেখামাত্র নচিকেতার ফেসবুকে হু হু করে প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করে। শুরু হয় জল্পনা। অনেকেই ভেবে বসেছিলেন যে নচিকেতার বৈবাহিক জীবনে এই বিচ্ছেদ হয়তো হতে চলেছে। তবে যারা নচিকেতাকে বহু আগে থেকে চেনেন তারা বুঝতেই পেরেছিলেন যে এটা তার কোনো নতুন গানের আগাম ইঙ্গিত। শেষ পর্যন্ত আজ সব প্রশ্নের জবাব পাওয়া গেল।

নচিকেতা মানেই নব্বইয়ের দশকে বাঙালি জীবনে আবেগ নিয়ে আসা। নীলাঞ্জনা হোক বা রাজশ্রী, অনির্বাণ বা সময় নচিকেতার সব গানই যেন জীবন্ত এক বাস্তবকে তুলে ধরে। এরপর বৃদ্ধাশ্রমের মতো বাস্তবিক গান আট থেকে আশি প্রতিটা মানুষের হৃদয় ছুঁয়ে গেছে। নচিকেতা মানেই জীবনমুখী গান। তার হাত ধরে গানের ধারা এক অন্য রূপ পেয়েছে।

হ্যাপি ডিভোর্স গানটিও সেরকমই একটি বার্তা বহন করছে। ডিভোর্সের পর সব বন্ধন থেকে মুক্তি হয়ে যাওয়া আবার অতীত স্মৃতি বারবার আঘাত করা সবকিছু নিয়েই নচিকেতার এই নতুন গান। গান মুক্তির আগে এই গানের একাধিক পোস্টার শেয়ার করেছেন তিনি। তাতে তার চোখে মুখে কান্না জমে আছে। হাত দিয়ে ঢাকা মুখ। হাতে নানা ধরনের চিহ্ন আঁকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দৈনিক প্রতিদিনের বার্তা ©
Theme Customized By Shakil IT Park